ট্রাম্পের বিদায়ী সময়ে ৬ প্রশ্ন

0 ২০

ক্ষমতার মেয়াদ একদমই শেষ পর্যায়ে রয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের। ক্ষমতায় থাকাকালীন তার আচরণ ও কর্মকাণ্ড এমন এক পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে যা এর আগে কোনো ক্ষমতা হস্তান্তরকালীন সময়ে দেখা যায়নি। তার ক্ষমতার এই শেষ সময়ে এসে ৬টি গুরুত্বপূর্ন প্রশ্নের উত্তর নিয়ে আলোচনা করেছে লস এঞ্জেলস টাইমস।

ট্রাম্পকি বাইডেনের সঙ্গে কথা বলবেন?
গত এক শতাব্দীর মধ্যে ট্রাম্পই হবেন প্রথম বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট যিনি নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন না। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের জয়ের পরেও তাকে কোনো ফোন কল করেননি ট্রাম্প। আমন্ত্রণ জানাননি হোয়াইট হাউজেও। নির্বাচনের পূর্বে বিতর্কের পর এখন পর্যন্ত বাইডেনের সঙ্গে কোনো কথাই বলেননি ট্রাম্প। তবে ১৯শে জানুয়ারি রাত ব্লেয়ার হাউজে থাকার জন্য জো বাইডেনকে আমন্ত্রণ জানিয়েচেহ হোয়াইট হাউজ। অভিষেকের পূর্বে ঐতিহ্যগতভাবে চা পার্টির যে আয়োজন হয়ে থাকে তাতেও বাইডেনকে ট্রাম্প আমন্ত্রণ জানাবেন না বলেই ধারণা করা হচ্ছে।তবে তার কিছুটা সম্ভাবনা হয়তো রয়েছে এমনটাই বলছে লস এঞ্জেলস টাইমস।

ট্রাম্প কবে হোয়াইট হাউজ ছাড়ছেন?
ঐতিহ্যগতভাবে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান শেষেই বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ক্যাপিটল থেকে তার নতুন গন্তব্যে চলে যান। এসময় তাকে এয়ারফোর্স ওয়ানের একটি বিমানে যুক্তরাষ্ট্রের যেখানে খুশি নিয়ে যাওয়া হয়। তবে এবার যেহেতু ট্রাম্প শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন না তাহলে তিনি কখন হোয়াইট হাউজ ছাড়বেন তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। এ নিয়ে এখনো স্পষ্ট উত্তর নেই হোয়াইট হাউজের কর্মকর্তাদেরও। লস এঞ্জেলস টাইমস জানিয়েছে, আপাতত মঙ্গলবার ট্রাম্প ওয়াশিংটন ছাড়বেন এমন সম্ভাবনা ধরেই আগানো হচ্ছে। এদিন বাইডেন রাজধানীতে আসবেন। আবার এমনটাও হতে পারে যে, বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানের পূর্বেই ট্রাম্প ওয়াশিংটন ছেড়েছেন।

আর কতজনকে ক্ষমা করবেন ট্রাম্প?
গত ডিসেম্বরে ট্রাম্প জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিন, সাবেক প্রচারণা চেয়ারম্যান পল মানাফোর্ট এবং জামাতা জারেড কুশনারের পিতাকে ক্ষমা করেছেন। ট্রাম্প এখন শেষ সময়ে আরো কয়েকজন নিকট জনের জন্য দায়মুক্তি নিশ্চিত করতে চাইতে পারেন। তিনি হয়ত নিজের ও পরিবারের জন্যও দায়মুক্তি নিশ্চিত করতে চাইবেন এমন সম্ভাবনাও সৃষ্টি হয়েছে।

ট্রাম্প কি তার অর্জনগুলোকে শেষবারের মতো তুলে ধরবেন?
অফিস ছাড়ার পূর্বে প্রেসিডেন্টরা একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকেন। তাতে তারা তাদের সময়ে অর্জিত বিভিন্ন অর্জন তুলে ধরার চেষ্টা করেন। যাতে করে ইতিহাসে তাদের অর্জনগুলো ¯পষ্টভাবে স্থান পেতে পারে। আগামি মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো দেয়াল পরিদর্শণ করতে যাওয়ার কথা রয়েছে ট্রাম্পের। ধারণা করা হচ্ছে, সেখানেই হয়ত তিনি তার সরকারের নানা অর্জনের কথা তুলে ধরবেন। তবে জানা গেছে, তিনি এখনো কোনো বিদায়ী ভাষণ দেয়ার কথা ভাবছেন না।

সৃষ্ট সহিংসতার আশঙ্কা দূর করতে ট্রাম্প কি কিছু করবেন?
জো বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠান উপলক্ষে ৫০ প্রদেশেই সশস্ত্র বিক্ষোভের আশঙ্কার কথা জানিয়ে সতর্ক বার্তা দিয়েছে এফবিআই। গত বুধবার দ্বিতীয় বারের মতো অভিসংশিত হয়েছেন ট্রাম্প। তার শেষ সময়ের কোনো বক্তব্য নতুন করে তার সমর্থকদের মধ্যে উন্মাদনা সৃষ্টি করে কিনা তা নিয়েও সতর্ক রয়েছে মার্কিন নিরাপত্তা বাহিনী। আবার হয়তো তিনি এমন কিছু বলবেন যা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে প্রভাব ফেলবে।

ক্ষমতা ছাড়ার পর কি করবেন ট্রাম্প?
এখনো এ বিষয়ে কিছু জানাননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ২০২৪ সালে আবারো প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচনের জন্য নামতে পারেন ট্রাম্প এমন ইঙ্গিত আগেই পাওয়া গিয়েছিল। তবে আগামি সপ্তাহে সিনেটে তার ই¤িপচমেন্ট ট্রায়াল উঠছে। যদি তিনি অভিযুক্ত হন তাহলে সিনেট চাইলে তাকে আবারো ফেডারেল অফিস চালানোর জন্য অযোগ্য ঘোষণা করতে পারে। এমনকি বাতিল হতে পারে তার পেনশনও।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com