পেটে ছাত্রলীগ কর্মীর লাথি, মুহূর্তেই লুটিয়ে পড়েন ছন্দা

Published: Wednesday, November 6, 2019 1:25 PM   |   Modified: Wednesday, November 6, 2019 1:25 PM
 

ডিএল টিভি ডট কম

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে চলমান আন্দোলনে ছাত্রলীগের হামলায় মাটিতে লুটিয়ে পড়া শিক্ষার্থীর নাম মারিয়াম রশিদ ছন্দা। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের স্নাতকোত্তরের ছাত্রী। আন্দোলনের সময় ছাত্রলীগের এক কর্মী তার পেটে লাথি মারায় যন্ত্রণায় মাটিয়ে লুটিয়ে পড়েন তিনি।

আহতাবস্থায় মারিয়াম রশিদ ছন্দাকে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার আহতাবস্থার একটি ছবি ভাইরাল হয়।

আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসভবনের সামনে আন্দোলনকারীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। হামলায় অন্তত ২৫ শিক্ষার্থী আহত হন। তাদের মধ্যেই একজন মারিয়াম ছন্দা।

আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার সময় ছন্দার পেটে লাথি দেয় এক কর্মী। সঙ্গে সঙ্গেই যন্ত্রনায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ছন্দা। পরে তাকে অন্যান্যরা ধরাধরি করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

হামলার সময় ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন আন্দোলনরত শিক্ষার্থী জানান, ছাত্রফ্রন্টের জাবি শাখার সভাপতি মাহাথির মোহাম্মদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা থেকে বাঁচাতে এগিয়ে যান মারিয়াম রশিদ ছন্দা। এ সময় ক্ষিপ্ত হয়ে ছাত্রলীগের এক কর্মী মারিয়ামের পেটে লাথি মারেন। এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, হামলার পর ছন্দাকে উদ্ধার করে প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যায়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের স্নাতকোত্তরের এই ছাত্রী।